টাকা খেয়ে যদি ভোট না দিতাম, তাহলে সরকারের দেয়া আজকের ত্রান আমরা সঠিকভাবে পেতাম।


বর্তমান বাংলাদেশের পরিস্থিতি খারাপের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। করোনাভাইরাস এর কারণে বাংলাদেশ দিন দিন গভীরভাবে অচল হয়ে পড়ছে। এদিক দিয়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়ে চলছে সাথে মৃত্যুর হারও রয়েছে। সাধারণ মানুষের কাজ বন্ধ হয়ে তাদের জীবন অচলপ্রায়। বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ দরিদ্র হওয়াতে তাদের দিন আনে দিন খায় এমন অবস্থায় থাকতে হয়। সেখানে দীর্ঘদিন যাবত কাজকর্ম বন্ধ থাকার কারণে অনেকের ঘরে জ্বলছে না রান্নার চুলা। এমত অবস্থায় তারা না খেয়ে রয়েছেন দুই থেকে তিনদিন পর্যন্ত।

কেউ কেউ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। কিন্তু সাহায্য করা ব্যক্তিগুলো সংখ্যালঘু হওয়াতে মানুষের কোনো মৌলিক চাহিদায় তারা পূরণ করতে পারছেন না। অথচ দূর্সময়ে যাদের কে সাহায্যের জন্য সরকার নেতাকর্মী হিসাবে বড় স্থানে রেখেছেন, তারা কিছু সংখ্যক নেতা কর্মী ছারা প্রায় সকলেই নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত। ব্যস্ত রয়েছেন কিভাবে মানুষের হক মেরে খাওয়া যায় ও নিজের পুজি বৃদ্ধি করা যায়।  বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপট উপলদ্ধি করে, বর্তমান সরকার শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষের জন্য কোটি কোটি টাকা বাজেট করেছেন। যেন মানুষ অর্থ ও খাবারের অভাবে না খেয়ে মারা না যায়। সরকার দলীয় নেতা-কর্মীদের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হলেও তারা সাধারণ জনগণের কাছে ঠিকমত তাদের হক পৌঁছে দিচ্ছেন না।

সাধারন জনগন এই ত্রাণের হক সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে আনতে গেলে অপমানিত হচ্ছে তারা এমন অভিযোগ পাওয়া যায়। অনেকেই ত্রাণ আনতে যাওয়া তে মার খেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরেছেন, এমন খবরও পাওয়া গেছে। সোশ্যাল মিডিয়া সহ বিভিন্ন খবর পত্রিকায় ভাইরাল হয়েছে। তাদের ছবি যারা সাধারণ জনগণের হককে পুঁজি করে নিজের সম্পদ ভেবে রেখে দিয়েছেন। সাধারণ মানুষ এমন অবস্থার স্বীকার হয়ে নিজেরাই বলছেন ’’তখন যদি টাকা না খেয়ে ভোট দিতাম, তাহলে আজকে হয়তো সরকারের দেয়া ত্রান আমরা যথাযথভাবে পেতাম। অসৎ লোক, সম্পদ লোভী মানুষকে ক্ষমতায় বসালে এমনি হবার কথা ছিল।যারা টাকা দিয়ে ভোট কিনেছে তারা এখন সুযোগ বুঝে সেই টাকা উত্তোলন করছেন। তাই সর্বাপেক্ষা উচিত এসব ঘটনা সরকার পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়া। যেন আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন বাংলাদেশ সরকার।


প্রতিবেদন

আদনান হোসেন তরু।


কোন মন্তব্য নেই

Write your comment here........

Blogger দ্বারা পরিচালিত.