করোনাভাইরাস (covid-19) এর গুরুত্বপূর্ণ আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেনঃ
খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকুন। যারা বিদেশ থেকে ফিরেছেন তাদের 14 দিন হোম কুয়ারেন্টাইন আইন মেনে চলুন। সব সময় সাবান পানি দিয়ে হাত পরিষ্কার করুন। হাঁচি বা কাশি আসলে নাক মুখ ঢেকে রাখতে হবে প্রয়োজনে টিস্যু বা রোমাল ব্যবহার করুন। নির্দিষ্ট স্থানে থুথূ ফেলবেন। হাত মেলানো বা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকবেন। মুসলিমরা মসজিদে নামাজ আদায় করুন এবং অসুস্থদের বাইরে রাখুন। অন্য ধর্মের মানুষ কক্ষে বা বাসায় বসে প্রার্থনা করুন। পরিবার, সমাজ তথা দেশ রক্ষার্থে এসব পরামর্শ মেনে চলুন।

আতঙ্কিত হওয়া যাবে না এবং করোনাভাইরাস দ্রুত ছরানোর ক্ষমতা রাখে কিন্তু মানুষ পরিচর্যা করার কারণে ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সুস্থ হয়ে যাচ্ছে। যারা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত তাদের বেশি ক্ষতি করে করোনাভাইরাস। যদিও এটা বেশি প্রাণঘাতী তবে ভয় পাবেন না পরিচর্যায় পারে এই ভাইরাস থেকে দূরে রাখতে অথবা সুরক্ষিত রাখতে। কেউ যদি এভাইরাসে  আক্রান্ত হয় তবে সেই মানুষটির উপর নজর রাখুন এবং পরিচর্যা করুন খেয়াল রাখবেন পরিবার, প্রতিবেশীরা যেনো সংক্রমিত না হয়। আপনি পারেন আপনার সচেতনতা দিয়ে আপনার পরিবার এবং সমাজ রাষ্ট্র তথা দেশের মানুষকে সুরক্ষিত রাখতে।

গরিব অসহায় মানুষকে ভোগ্যপণ্য কেনার সুযোগ দিন। প্রয়োজনের অতিরিক্ত ভোগ্যপণ্য কিনবেন না। যদি এরকম করতে দেখা যায় তবে কঠোর আইনগত শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিত্তবান যারা আছেন তারা অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানিয়েছেন জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভোগ্যপণ্য যথেষ্ট পরিমাণে মজুদ রয়েছে এবং আমদানি করার চেইন ও অটুট রয়েছে। সুতরাং অসাধু ব্যবসায়ীরা ভোগ্য পণ্য মজুদ করে দাম বৃদ্ধি করবেন তা হতে দেবেননা। যারা স্বাস্থ্য সেবক রয়েছেন তাদের সুরক্ষার জন্য সর্বোচ্চ ব্যবস্থা রয়েছে। সুরক্ষার জিনিসপত্র পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে তবে স্বাস্থ্য সেবা বা সেবিকা ছাড়া (পিপিই) কেউ পরিধান করবেন না। যদি (পিপিই) ব্যক্তিগতভাবে কেউ পরিধান করেন তবে তাকে হাসপাতলে সেবার জন্য পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 
.
বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা বা রোগীর জন্য হাসপাতাল করা হচ্ছে। কেউ গুজব ছড়িয়ে আতঙ্কিত করবেন না তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দিনমজুর বা অসহায় মানুষকে ছয় মাসের খাদ্য সহায়তা দেবেন সরকার, ঘোষণা করেছেন জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরও বলেন ,কমপক্ষে এক বছর খাদ্যপণ্যের আমদানি করার ক্ষমতা রয়েছে খাদ্যপণ্যের যথেষ্ট পরিমাণ মজুদ রয়েছে। তিনি বলেন ’’আমি বাংলাদেশের সন্তান হিসেবে এ দেশের মাটির প্রতি আমার কিছু কর্তব্য রয়েছে সুতরাং করোনা মোকাবেলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশ দেশের মানুষের সাথে থাকবেন বলে জানিয়েছেন।





সূত্র

অনলাইন









কোন মন্তব্য নেই

Write your comment here........

Blogger দ্বারা পরিচালিত.